মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ অক্টোবর ২০১৫

বস্ত্র সেল

          তৈরি পোশাক শিল্প বাংলাদেশে রপ্তানি আয়ের প্রধান খাত। এ খাতে ৪০ লক্ষের বেশি শ্রমিক সরাসরি কাজ করে তন্মধ্যে শতকরা ৮০ ভাগ কম-সুবিধাভোগীই নারী। তৈরি পোশাক খাতের কল্যাণে সহায়ক খাত যেমন বিশেষ করে ব্যাংক, বীমা, আইটি, পরিবহন, ট্যুরিজম এবং অনেক খাত গড়ে উঠেছে। এ খাত দেশের দেশজ আয় এবং দারিদ্রবিমোচনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। এ খাত দেশকে ক্রমান্বয়ে সাহায্য নির্ভরতা থেকে বাণিজ্যনির্ভরতার দেশে পরিণত করার পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

 

          বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বস্ত্র সেল থেকে তৈরি পোশাক শিল্পের বিদ্যমান সমস্যা নিরসনসহ এ সেক্টরের উন্নয়নে কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা  প্রণয়ন ও তৈরি পোশাক রপ্তানিতে উদ্ভূত সমস্যাবলী নিরসন, পোশাক শিল্পে কমপ্লায়েন্স প্রতিপালনে নীতিগত সহায়তা, শ্রমিক অসন্তোষ নিরসনে কার্যক্রম গ্রহণ ও শ্রমিক অধিকার নিশ্চিতকরণ, তৈরি পোশাকের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার এবং জিএসপি সংক্রান্ত  বিষয়ে এ সেল কাজ করে থাকে।

 

           তাজরীন ফ্যাশান অগ্নিকান্ড ও রানাপ্লাজা ভবন ধ্বসের কারণে এ সেক্টর কঠিন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়। “বাংলাদেশ একশন প্লান-২০১৩”, “সাসটেইন্যাবল কমপ্যাক্ট” এবং “জাতীয় ত্রি-পক্ষীয় কম©-পরিকল্পনা” বাস্তবায়নের মাধ্যমে তৈরি পোশাক কারখানাগুলোতে কমপ্লায়েন্সের উন্নতি হচ্ছে। ফলে তৈরি পোশাকের গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পাচ্ছে যা তৈরি পোশাক রপ্তানি বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। এ সেল থেকে উক্ত পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নে কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এছাড়া, মুন্সিগঞ্জ জেলার বাউশিয়ায় প্রায় ৫৩০ একর জমির উপর ‘গার্মেন্টস শিল্প পাক©’’ স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলছে। তৈরি পোশাক শিল্পে কম©রত শ্রমিকদের দক্ষতা উন্নয়নে প্রশিক্ষণ কম©সূচি পরিচালিত হচ্ছে। বস্ত্র সেল থেকে বিষয়গুলো দেখভাল করা হয়।


Share with :
Facebook Facebook